সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৫ অপরাহ্ন

ঢাকা-১৮: উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় শেষ হলো ভোট

বিশেষ প্রতিবেদক। জি.এম.টি
  • আপডেট টাইম: রবিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৭৭ বার পঠিত

নানা উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে সারাদেশের ন্যায় ঢাকা-১৮ আসনেও শেষ হলো দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ কার্যক্রম। এবারের নির্বাচনে ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ এই আসন থেকে ৬ দলের সর্বমোট দশ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করলেও ভোটের দিন কেন্দ্রগুলোতে জাতীয় পার্টি মনোনীত ও মহাজোট সমর্থিত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী শেরীফা কাদের ও স্বতন্ত্র হিসেবে অপর দুই আ.লীগ নেতা যথাক্রমে খসরু চৌধুরী (কেটলী) এবং এসএম তোফাজ্জল হোসেনের ট্রাক প্রতীকের এজেন্টদেরকে কেন্দ্রের পোলিং এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। অধিকাংশ কেন্দ্রেই অন্য প্রার্থীরা নিজেদের পোলিং এজেন্ট দিতে পারেনি। নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসনের সর্বমোট ২১৭টি কেন্দ্রেই সকাল ৮টা থেকে একযোগে শুরু হয় ভোটগ্রহণ।

ভোটকেন্দ্রে ভোটের চিত্র

ঢাকা-১৮ আসনের ভোটকেন্দ্রগুলো ঘুরে দেখা যায় সকাল থেকেই কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। আসনের অন্তর্ভূক্ত উত্তরা হাইস্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্র, ১১ নম্বর সেক্টর এলাকার মাইলস্টোন স্কুল, ৫ নম্বরের আইইএস স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রের মত বড় বড় কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম হওয়ায় ভোটের মাঠ ছিল আমেজহীন। ফলে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টসহ সংশ্লিষ্ট ভোটগ্রহণকারী কর্মকর্তাদের দিনব্যাপী অনেকটা অলস সময় পার করতে দেখা গেছে। দুপুর ২টার পর উত্তরা আইইএস স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরের বাসিন্দা খাদিজাতুল কুবরা জানায়, ভোটের সার্বিক পরিবেশ ভালো। কোন রকম ভীড় নেই। ভোটের আমেজ মনে হচ্ছে না।

 

নির্বাচনী সহিংসতা

ভোটের দিনকে কেন্দ্র ঢাকা-১৮ আসনে তেমন কোন নির্বাচনী সহিংসতা কিংবা অপ্রীতিকর পরিস্থিতির না ঘটলেও খিলক্ষেত ও উত্তরখানের দুটি স্থানে ভোটকেন্দ্রের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। অপরদিকে, ককটেল বিস্ফোরণের একই ঘটনা ঘটেছে উত্তরখানের ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডস্থ সাদেক মাস্টার মডেল স্কুলের সামনে। এসব ঘটনায় কোন হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও জড়িতদের ব্যাপারে তথ্য দিতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ দিন সকাল থেকেই কেন্দ্রে কেন্দ্রে নিচ্ছিদ্র পুলিশি পাহারা লক্ষ করা গেছে। তবে তা স্বত্বেও কেন্দ্রের আশপাশজুড়ে ছিল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকরা। এতে উপেক্ষিত হয় ভোটকেন্দ্রের ৪০০ গজের ভেতর সব ধরণের ক্যাম্প কিংবা জনসমাবেশের বিষয়টি।

 

ভোটের দিন যা বলল প্রার্থীরা

অপরদিকে, ভোটের দিন ঢাকা-১৮ আসনজুড়ে ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে সক্রিয় ছিল আলোচিত তিন প্রার্থী। বেলা সাড়ে ১১টায় উত্তরা হাইস্কুল কেন্দ্রে আসেন এই আসনে মহাজোট সমর্থিত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী শেরীফা কাদের। এ সময় তিনি কেন্দ্রটিতে নিজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, আমি সাধারণ জনগণের সাপোর্ট পাচ্ছি। সমঝোতার আসন হিসেবে আওয়ামী লীগের অনেকেই আমার সাথে আসছেন। রেজাল্ট যাই হোক মেনে তো নিতেই হবে। বিজয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী।

আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা কেটলী প্রতীকের খসরু চৌধুরী সকাল ৮টায় ভোট দেন দক্ষিণখান আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। ভোট দেয়া শেষে সাংবাদিকদের দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, শেরে বাংলা নগর আইডিয়াল স্কুলে আমার এজেন্টকে বের করে দেয়া হয়েছে। তবে সুষ্ঠু ভোট হলে আমি শতভাগ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। আলোচিত অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম তোফাজ্জল হোসেন (ট্রাক) সকাল ১০টায় ভোট দেন দক্ষিণখানের এমারত হোসেন বিদ্যালয় কেন্দ্রে। ভোট শেষে তিনিও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

  • Print
  • উত্তরা নিউজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন:
এ জাতীয় আরো খবর..
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩-২০২৩
themesba-lates1749691102