সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৩৪ অপরাহ্ন

‘নির্বাচন-পরবর্তী নিষেধাজ্ঞা নিয়ে এখনই ভীতির কারণ দেখছি না’

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম: বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৩০ বার পঠিত

আগামী ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও উৎসবমুখর পরিবেশে হবে বলে প্রত্যাশা করছেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। নির্বাচনের পর নিষেধাজ্ঞা আসা না আসা নিয়ে এখনই অস্থিরতা বা ভীতির কোনো কারণ দেখছেন না তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডিপ্লোম্যাটিক করেসপনডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ডিক্যাব) সঙ্গে মতবিনিময়কালে এমন প্রত্যাশার কথা জানান পররাষ্ট্রসচিব।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, আমরা সবচেয়ে খারাপটা চিন্তা করব কেন? আমাদের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে বলা হচ্ছে, সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রতিশ্রুতির কথা। প্রধানমন্ত্রী নিজে বলেছেন। নির্বাচন কমিশন সেই লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে, কাজ করে যাচ্ছে। আমরাও আশা করছি, একটা সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। সেজন্য আমরা সবাই কাজ করছি।

তিনি বলেন, আশা করছি নির্বাচন ভালো হবে। আর নির্বাচনের সময় যদি কোনো রকমের সমস্যা হয়, সেটা তখন আমরা দেখব। আমরা এই মুহূর্তে মনে করছি না, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। যদি ওরকম পরিস্থিতি (নির্বাচন যদি সুষ্ঠু না হয়) আসে তখন আমরা নিশ্চয়ই পদক্ষেপ গ্রহণ করব। আগে থেকে আমরা কেন চিন্তা করব?

নির্বাচন-পরবর্তী নিষেধাজ্ঞা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, আমরা আশা করছি সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। কোনো পার্টিকুলার (নির্দিষ্ট) দেশ যদি মনে করে… তারপরও যদি নিষেধাজ্ঞার ইস্যু আসে..  তখন আমরা সেটা তুলব। এটার জন্য এখনই আমরা অস্থির হয়ে যাওয়া বা প্যানিক (ভীতি) সৃষ্টির কোনো কারণ দেখছি না।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, সমস্যা টুকটাক থাকবে, এটা নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে। কোন দেশ কী ভাবল বা কী করল সেটা নিয়ে আসলে এতটা দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। আমরা নিজেরা যদি ঠিক থাকি, নির্বাচন যদি আমরা সুষ্ঠু করতে পারি, ভোটাররা যদি ভোট দেন…। আমরা চাই না, নির্বাচনে সংঘাত হোক। তারপরও অতীত অভিজ্ঞতায় আমরা দেখেছি, স্থানীয়ভাবে সংঘাত হতে। এটাকে কীভাবে কমিয়ে আনা যায় সেই চেষ্টা থাকবে।

নিষেধাজ্ঞা এলে সরকারের দিক থেকে প্রস্তুতি নিয়ে করা প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রসচিব বলেন, প্রত্যেকটা দেশে তাদের সার্বভৌমত্বের ব্যাপার রয়েছে। আমরা সবাইকে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য স্বাগত জানিয়েছি। তারা নির্বাচন প্রক্রিয়া দেখবে, সবকিছু দেখবে। কমনওয়েলথ থেকে বড় একটা টিম আসছে। শহরে এনডিআই, আইআরআই টিম রয়েছে, ইইউর টিম রয়েছে। এছাড়া আরও অনেক পর্যবেক্ষক আসবে। আমরা আশা করছি, উৎসবুখর পরিবেশে নির্বাচন হবে।

নির্বাচন-পরবর্তী সময়ে কূটনৈতিক চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, আমরা এখন মনোযোগ দিচ্ছি, নির্বাচন যাতে আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু করতে পারি। সেজন্য কমিশনকে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে পারব। যুক্তরাষ্ট্রের দিক থেকে নির্বাচনে কেউ বাধা দিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থার কথা বলছে। যেহেতু আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করব, সেই ভয় থাকছে না। এখন আমাদের ফোকাস হচ্ছে ৭ জানুয়ারি যাতে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন করা যায়। তারপর যদি কোনো সমস্যা হয় সেটা আমরা রেইজ করব।

নিউজটি শেয়ার করুন..

  • Print
  • উত্তরা নিউজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন:
এ জাতীয় আরো খবর..
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩-২০২৩
themesba-lates1749691102