arrest from uttara

উত্তরা থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ ৪জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে এলিট ফোর্স র‌্যাব-১। আটককৃতরা হলো- মো: আলী আকবর (২৮), ইব্রাহীম (৩৩), সোহাগ (২০) ও শামীম (২৩)। এসময় র‌্যাব সদস্যরা ধৃত মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৭ টি মোবাইল ফোন ও মাদক বিক্রির নগদ ৫৬ হাজার টাকা উদ্বার করেন।
আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উত্তরা পশ্চিম থানাধীন সেক্টর-৭, সোনারগাঁও জনপথ রোড বাসা নম্বর- ১৭ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে র‌্যাব-১ এর একটি দল।
র‌্যাব সদর দপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (এএসপি) মো: মিজানুর রহমান ভুঁইয়া আজ মঙ্গলবার রাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
র‌্যাব-১ সুত্রে জানা যায়, আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উত্তরা পশ্চিম থানাধীন সেক্টর-৭, সোনারগাঁও জনপথ রোড বাসা নম্বর- ১৭ কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছেন গোপনে খবর পেয়ে সেখানে র‌্যাব-১ এর একটি দল অভিযান চালায়। এসময় র‌্যাব সদস্যরা ১০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৭ টি মোবাইলফোন ও মাদক বিক্রির নগদ ৫৬ হাজার টাকাসহ ওই ৪জনকে গ্রেফতার করে।
ধৃত মাদক ব্যবসায়ীদের জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাব জানতে পারে যে, আলী আকবর দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজারে বসবাস করে আসছেন। তিনি কক্সবাজারের রামুতে ডেকোরেশনের দোকানে কাজ করেন। মিয়ানমার হতে আসা ইয়াবা ট্যাবলেট চট্টগ্রামের জনৈক সেলিমের কাছ থেকে তিনি সংগ্রহ করে নিজে ঢাকায় নিয়ে আসেন। তিনি ঢাকায় ইয়াবা ব্যবসায়ীদের কাছে তা পাইকারি মূল্যে বিক্রয় করেন। উল্লিখিত ইয়াবার চালানটি চট্টগ্রামের জিইসি মোড় থেকে সংগ্রহ করে ঢাকায় নিয়ে আসেন তিনি। এই চালান উত্তরা হাউজবিল্ডিংয়ে সিটি রেস্টুরেন্টে হস্তান্তর করার কথা ছিল।
র‌্যাব কর্মকর্তারা আরো জানান, ইব্রাহিম কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দা। টেকনাফের হ্নিলা মৌলভীবাজারে তার মুদির দোকান ছিল। পরবর্তীতে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা আসায় তার ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায়। চট্টগ্রামের জনৈক সেলিমের মাধ্যমে আলী আকবরের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। তার সহযোগী ধৃত সোহাগ বরগুনা আমতলী ডিগ্রি কলেজে বিএসএস দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত। মোহাম্মদপুরের জনৈক রুবেল তাকে ৫০ টাকা দিয়ে উত্তরা হতে ইয়াবার চালানটি সংগ্রহ করতে বলে। এ পরিপ্রে¶িতে তিনি ইয়াবার চালানটি সংগ্রহের জন্য উত্তরায় আসেন।
অপর দিকে, মিরপুরে মাছের মোকামে কাজ করেন শামীম। জনৈক রুবেলের মাধ্যমে সোহাগের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। রুবেল তাকে মোবাইল ফোনে উত্তরা থেকে ইয়াবার চালানটি হতে সংগ্রহ করতে বলেন। সোহাগ ও শামীম হাউজবিল্ডিং সিটি রেস্টুরেন্টে ইয়াবার চালানটি সংগ্রহ করতে গিয়ে র‌্যাবের হাতে ওরা ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হন। ধৃত ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে জিঞ্জাসাবাদ শেষে উত্তরা পশ্চিম থানায় সোপর্দ করা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। এঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে, গত ১৩ অক্টোম্বর দুপুর সোয়া ৩টার দিকে উত্তরা-পশ্চিম থানা এলাকা থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৪৮০ গ্রাম হেরোইন সহ ২জন মাদক ব্যবসায়ীকে ডিবি (উত্তর) বিভাগের গুলশান জোনাল টিমের সদস্যরা গ্রেফতার করে। ধৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন- মো: আসিফ আহম্মদ (২৭) ও মোঃ আঃ মান্নান খান (৬৪)। এ সময় তাদের হেফাজত থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৪৮০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ’র গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি’র সদস্যরা তাদের কাছ থেকে মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়।
ডিবি-উত্তর বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারকৃতরা কক্সবাজার হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে ঢাকায় এনে উত্তরা, তুরাগ ও টংগী থানা এলাকায় বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করত।এ সংক্রান্তেতাদের বিরুদ্ধে উত্তরা-পশ্চিম থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / এস,এম,মনির হোসেন জীবন

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা