obaidul-kader

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর কারিশমাকে শুধু অতিক্রম করেননি, নিজ দক্ষতার গুণে তিনি আওয়ামী লীগকেও অতিক্রম করেছেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে শেখ হাসিনার সমকক্ষ আর কেউ নেই। শেখ হাসিনা যোগ্যতা, বুদ্ধিদীপ্ততা, বিচক্ষণতার মাধ্যমে তার বয়োজ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদদেরও হার মানিয়েছেন। শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রনায়ক উপাধিতে যারা হাসি-ঠাট্টা করেছিল, তারাই আজ হাসি-ঠাট্টায় পরিণত হয়েছে। আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী সম্পাদিত ‘সময়রেখায় রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের পরিবর্তনের মূল কারিগর শেখ হাসিনা। তার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বিশ্বে আজ বাংলাদেশ পরিচিত হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য। সভাপতির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, বাংলার সাহিত্যের প্রবাদ প্রতিম এক পুরুষ সব্যসাচী লেখক ও কবি সৈয়দ শামসুল হক বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। এই শিল্পীর জীবনের পরিসমাপ্তি আমাদের শিল্প সাহিত্যের জন্য এক বিরাট ক্ষতি। কৃতজ্ঞ ও বেদনাচিত্তে আমরা তাকে বিদায় অভিবাদন জানাই। যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, কেন আমরা প্রকাশনা করি।

বর্তমানকে সমৃদ্ধ করে ভবিষ্যৎ গড়তে হবে। রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা আমাকে শিখিয়েছেন, বুঝিয়েছেন, একটি রাজনৈতিক সংগঠনের তিনটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ- গবেষণা, গ্রন্থণা ও অনুবাদ। আজ বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী সারা বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ হচ্ছে। কিন্তু এসব কাজে আমরা তেমন নজর দিচ্ছি না। আমরা একই সাথে বর্তমান ও ভবিষ্যতের মানুষ। বর্তমানকে সমৃদ্ধ করার মাধ্যমে ভবিষ্যতকে গড়ে তুলতে হবে। আলোচনা সভা শেষে প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। একইসাথে সদ্য প্রয়াত সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়। 



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা