life

একটি স্বাস্থ্যকর সম্পর্কে দুইজনের ই সমান সমান ভালবাসার প্রয়োজন হয়। দুইজনের সমান ভক্তি শ্রদ্ধা থাকার কারণে একটি সম্পর্ক অনেক বেশি সুখকর হয়। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ত্যাগের মহিমায় রূপান্তরিত হয় নারী। খুব কম সময়ে দেখা যায় যে, একজন নারী তার ভালবাসার মানুষকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে। কিন্তু কখন এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, আসুন জেনে নেয়া যাক-

১) আপনি তাকে নিজের ইচ্ছামত ব্যবহার করছেন। অর্থাৎ যখন প্রয়োজন বোধ হচ্ছে তখন আহ্লাদে আটখানা। আবার প্রয়োজন শেষ হলেই তার খবর নেয়াটাও জরুরী মনে করেন না আপনি। এরকম ব্যবহারের কারণে সে বুঝতে পারে, আপনার নিকট তার কোন গুরুত্ব নাই। সে দিন দিন নিজেকে প্রয়োজনহীন অনুভব করে এবং একসময় নিজেকে গুটিয়ে নেয়।

২) আপনারা একসাথে সময় কাটাচ্ছেন না। মনে রাখবেন, সম্পর্কের বয়স যত বেশি হোক না কেন, দুইজনের কিছু সময় অবশ্যই একসাথে কাটানো উচিৎ। যখনি আপনাদের মাঝে যোগাযোগের ঘাটতি শুরু হবে, তখনি সম্পর্ক অসুস্থ হয়ে পড়বে। সারাদিনের কঠোর পরিশ্রমের পর প্রতিটি নারী চায়, কিছুক্ষণের জন্য হলেও তার ভালবাসার মানুষটার কাঁধে যেন কিছু সময় অতিবাহিত করা যায়।

৩) আপনি দিনদিন স্বার্থপর হয়ে যাচ্ছেন। একটি ভাল সম্পর্কের জন্য অবশ্যই সৎ হওয়া প্রয়োজন। একে-অপরকে মনের বাঁধ ভেঙ্গে ভালবাসা একটি সম্পর্কের মুলমন্ত্র হতে হবে। যেখানে ভালবাসা গভীর, সেখানে বিন্দু বিন্দু কষ্ট, সাগর পরিমাণ কষ্টের স্রোত হয়ে দাঁড়ায়। তাই কেউ কাউকে কষ্ট দেয়ার আগে আরেকবার ভাবুন।

৪) অন্য কোন মেয়ের সাথে কখনও আপনার সঙ্গীকে তুলনা করবেন না। নারীরা এ বিষয়টা অনেক বেশি অপছন্দ করে। কারও সাথে তুলনা করার ফলে আপনার সম্পর্কের যে ক্ষতি হবে তা কখনও পূরণ করতে পারবেন না। এ নিয়ে খোঁটা আপনাকে শুনতেই হবে।

৫) প্রশংসা সঠিক সময়ে করা উচিৎ। আপনার জীবন সঙ্গী জীবনে কিছু একটা করে সুনাম কুড়াচ্ছেন। এতে করে আপনার তাকে সঙ্গ দেয়া উচিৎ। তার সাথে এই বিষয়ে হাসি তামাসা করে কখনও কষ্ট দিতে যাবেন না।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা