sector 9-11 lake uttara

নানা রকম ময়লা আবর্জনা আর বাসা বাড়িতে ব্যবহৃত বিভিন্ন অব্যবহৃত জিনিসের আবর্জনায় উত্তরা ১১ ও ৯ নং সেক্টরের গা ঘেঁষে উত্তর দিকে যে ঝিলটি রয়েছে সেটি ধীরে ধীরে সংকুচিত হওয়ার অভিপ্রায় তৈরি হতে যাচ্ছে। সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, লেকটির ধারে কয়েকটি স্থানে আশপাশের বাসা বাড়ি থেকে ফেলানো নানারকম উচ্ছিষ্ট বস্তু সামগ্রীর স্তূপ। কোথাও কোথাও স্থায়ীভাবে ফেলানো হচ্ছে এসব ময়লা আবর্জনা। এসব ময়লা আবর্জনা লেকের পানিতে পড়ে সেগুলো ভেসে যাচ্ছে লেকের মাঝে কিংবা কিনারে কিনারে। ফলে এক সময় নাব্যতা সংকটে পড়ার আশঙ্কায় রয়েছে লেকটি।
অন্যদিকে লেকটির উত্তর-পূর্ব কোণে পানির উপর বাঁশের শক্ত খুটির উপর তৈরি করা হয়েছে বসতঘরও। যা খালটিকে সংকুচিত করার ক্ষেত্রে আরও ভয়াবহতারও ইঙ্গিত প্রদান করছে।
এ বিষয়ে উপস্থিত কয়েকজনের কাছে জানতে চাইলে উত্তরা নিউজের প্রতিবেদক দলকে তারা জানান, ‘আশেপাশের বাসাবাড়ি গুলো থেকেই লেকের বিভিন্নস্থানে ময়লা ফেলা হচ্ছে। এমনকি তিন-চার তলার বাড়ির উপর থেকেও পলিথিনে ময়লা ভরে লেকে ফেলা হচ্ছে।’। উপস্থিত এক নিরাপত্তাকর্মী উত্তরা নিউজ জানায়, আমরা বহুবার এখানে ময়লা ফেলার জন্য নিষেধ করলেও আশপাশে অবস্থিত কয়েকটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা এখানে রাতের আঁধারে ময়লা ফেলছে। এ ব্যপারে কয়েকবার উত্তরা ১১ নং সেক্টর কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকেও তাদেরকে ময়লা না ফেলার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও লেকের পাশে বিভিন্ন স্থানে ময়লা ফেলছে কিছু লোকজন।
মনোরম পরিবেশের অন্যতম সৌন্দর্যম-িত লেকটিতে এভাবে ময়লা আবর্জনা যেমনিভাবে লেকটির জন্য ক্ষতি ঠিক তেমনি সকাল-বিকাল লেকের পাড়ে হাটতে আসা সেক্টরবাসীদের স্বাস্থ্যের জন্যও মারাত্মক হুমকি স্বরূপ।
তাই সেক্টর কল্যাণ সমিতি কর্তৃপক্ষের উচিত, লেকটির প্রতি যথেষ্ট দৃষ্টি দেওয়া এবং লেকের পাড়ে ময়লা ফেলা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / মোহাম্মদ গাজী তারেক রহমান

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা