uttarkhan-fire-accident

গত ১৩ অক্টোবর উত্তরখানের ব্যাপারীপাড়ার  এলাকায় ভোরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এ নিয়ে মোট পাঁচজনের মৃত্যু হল। ওই ঘটনায় দগ্ধ আরও তিনজন ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি আছেন।

উত্তরখানের ব্যাপারীপাড়ার তিনতলা ওই ভবনের নিচতলায় পাইপ লাইনের ছিদ্র থেকে গ্যাস জমে গিয়েছিল। সেদিন ভোর ৪টার দিকে রান্নাঘরের চুলা জ্বালতে গেলে পুরো ঘরে আগুন লেগে যায়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আটজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেদিন সকালেই মো. আজিজুল ইসলাম (২৭) নামে একজনের মৃত্যু হয়। সন্ধ্যায় মারা যান তার স্ত্রী মুসলিমা বেগম (২০)। আজিজুলের ফুফু সুফিয়া বেগম মারা যান রোববার।

 এরপর মঙ্গলবার রাতে সুফিয়ার মেয়ে পূর্ণিমা এবং বুধবার সকালে আজিজুলের বোন আঞ্জু আরার স্বামী ডাবলু মোল্লাও মারা গেলেন। পূর্ণিমার শরীরের ৮০ শতাংশ এবং ডাবলুর ৬৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পূর্ণিমার ছেলে সাগর (১২), আজিজুলের বোন আঞ্জু আরা (২৫), এবং তার ছেলে আব্দুল্লাহ সৌরভ (৫) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে সাগরের শরীরের ৬৩ শতাংশ পুড়ে গেছে। বাকি দুজনের অবস্থা কিছুটা ভালো বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। 

এই পরিবারের সদস্যরা গত মাসে ওই বাসার নিচতলায় ওঠেন। সেখানে তিনটি কক্ষে তারা থাকতেন। তাদের বাড়িপাবনার ভাঙ্গুরায়। মুসলিমা ও পূর্ণিমা উত্তরখানের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। আজিজুল একটি মাছের খামারে কাজ করতেন এবং ডাবলু অটোরিকশা চালাতেন। ডাবলুর ছেলে আব্দুল্লাহ ময়নারটেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণিতে পড়ছিল।

গতকাল ঢাকা  হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আফরোজা আক্তার পূর্ণিমা (৩০) গত রাতে মারা যান। সর্বশেষ তার চাচাতো বোনের স্বামী ডাবলু মোল্লার (৩৩) মৃত্যু হয় আজ সকাল ৮টার দিকে। এ নিয়ে উত্তরখানে ওই মারাত্মক অগ্নি দূর্ঘটনার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৫ এ।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / উত্তরখান প্রতিনিধি

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা