বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগসহ বাড়িতে হামলা চালিয়ে শিব মূর্তি- লোকনাথ মূর্তি, নগদ টাকা,স্বর্নলঙ্কার লুট করে সন্ত্রাসীদের দিয়ে বাড়ি দখলে নিয়ে অবৈধ হাসপাতাল করেছেন ডাঃ নারায়ণ দাস।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে চট্টগামের বাঁশখালী পৌরসভার ৮নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবলা কুমার দাস এ অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গত ১৬ মার্চ সন্ধ্যায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ডাঃ নারায়ণ দাসের সন্ত্রাসীরা স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় আমার ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় ও বসত বাড়িতে হামলা চালানো হয়।একই সঙ্গে বাঁশখালী থানার ওসি তদন্তের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে সন্ত্রসাীদের বাঁধা না দিয়ে আমাকে থানায় নিয়ে আটক করে রাখা হয়। এরপর আমার পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে টেনে হেঁচড়ে বের করে দেয়।পরে আমার কার্যালয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী ছবিসহ ভাঙচুর এবং ভবনের রক্ষিত মৃর্তি, পরিবারের স্বর্নলংকার, নগদ টাকা লুট করেই ক্ষ্যন্ত হয়নি।আগুন দিয়ে অনেক মালামাল পুড়িয়ে ফেলা হয়। পরে স্থানীয়রা থানায় আসলে তৎকালীন ওসি তদন্ত শরিফুল হক আমার ভবনটি ৯লাখ টাকায় বিক্রির প্রস্তাবের লিখিত রেখে আমাকে ছেড়ে দেয়।

এ ঘটনায় থানায় মামলা করতে গেলেও পুলিশ কোন অভিযোগ গ্রহণ করেননি। পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালায়ে অভিযোগ দিলে চট্ট্রাগ্রামের পুলিশ সুপারকে তদন্তের নির্দেশ দেন।বর্তমানে আনোয়ারা থানার সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) তদন্ত করছেন।যার স্বারক নং-৫৬৭৬/১৮।তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় বিরোধীয় ভবনে প্রবেশসহ কোন প্রকার পরিবর্তন না করার নির্দেশ দেন। কিন্ত ওই নির্দেশ অমান্য করে ডাঃ নারায়ণ নির্মাণ শুরু করেন। এবিষয়টি সহকারী কমিশনার (সার্কেল) জানার তাদের কাজ বন্ধ করে দেন।এখন ডাঃ নারায়ণ দাস ও তার লোকজন এখন আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের প্রানে হত্যাসহ নানা ধরণের হুমকি দিয়ে আসছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়, ডাঃ নারায়ণ উক্ত বাড়িতে অবৈধ হাসপাতাল ও ডায়াগোনেষ্টিক সেন্টার খুলে অবৈধভাবে ব্যবসা করছেন।তিনি ভারতের বেহালা এলাকায় বিলাসবহুল বাড়ি নির্মান করেছেন।তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্ব যথাযথ ব্যবস্থা নিতে প্রধাণমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে দাবি করেছেন ভুক্তভোগি বাবলা কুমার দাস।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / বিশেষ প্রতিবেদক

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা