সুরেন্দ্র কুমার সিনহা_un

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ জানলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার স্বার্থে অবশ্যই দোষী ব্যক্তিকে বিচারের আওতায় আনা হবে। তবে এখন পর্যন্ত এ ধরনের হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানেন না। সোমবার রাজধানীর নিম্ন আদালত পরিদর্শনে গিয়ে বার ভবনের হলরুমে মতবিনিময়সভায় একথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

আদালত অঙ্গনের অবস্থা জানতে হঠাৎ করেই ঢাকার মুখ্য হাকিম আদালত ও মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে উপস্থিত হন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।  প্রায় ১ ঘণ্টা ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের এজলাসে বসে বিচারকাজও পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। বিচারিক কার্যক্রম দেখার পাশাপাশি আদালতপাড়ার খোঁজখবরও নেন প্রধান বিচারপতি।

পরে বার ভবনে আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। সেখানেই হঠাৎ পরিদর্শনের উদ্দেশ্য সম্পর্কে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমি প্রথমেই আসছি হাজতখানায়। নারীদের হাজতখানায় চারজন নারী চারটি বাচ্চা নিয়ে আছে দেখে খুবই মর্মাহত হয়েছি। এ বাচ্চাগুলোতো অপরাধী না। হাজতখানায় অপরাধীদের সংস্পর্শে তাদের ওপর কোনো প্রভাব না পড়ুক এটা আমি চাই।’

বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নিয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি এখনো কোনো রেকর্ড পাইনি। পত্রিকা বা মিডিয়ার খবর দেখে আমরা বিচার করি না। যদি কোনো বিষয়ে জানতে পারি তাহলে অবশ্যই সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। অপরাধীরা যে-যতো বড়ই হোক কোনোক্রমেই ছাড় দেয়া হবে না। বিচারপতিরা এখন সম্পূর্ণ স্বাধীন।’

বার ভবনে মতবিনিময়ের পর মামলার জট কমাতে করণীয়সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিম্ন আদালতের বিচারকদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকের মধ্য দিয়ে শেষ হয় প্রধান বিচারপতির আকস্মিক নিম্ন আদালত পরিদর্শন কর্মসূচি।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / সারোয়ার জাহান

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা