uttara 6 no sector market problem

উত্তরা ৬নং সেক্টর সমবায় বাজার (সাবেক বিডিআর বাজার) এ গত ১২ অক্টোবর মারামারি ও হতাহতের ঘটনায় দুটি পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ ও মানববন্ধন করেছে। গত ১৯ অক্টোবর (শুক্রবার) দুপুর বারটায় বাজার ব্যবসায়ী সংগঠনের একাংশ আয়োজিত এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে গত ১৩ অক্টোবর (শনিবার) উত্তরা সমবায় বাজার ও ব্যবসায়ীবৃন্দের ব্যানারে মানববন্ধন করেন বাজার ব্যবসায়ী সমিতি।
ঘটনার সূত্রপাত হিসেবে জানা যায়,
গত ১২ অক্টোবর (শুক্রবার) দুপুরে হঠাৎ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ৬০/৭০ জনের একটি দল বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির অফিসে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও বাজার কমিটির সাত সদস্যকে রক্তাক্ত আহত করে। আহতরা হলেন- মোঃ জহিরুল ইসলাম (৫২) মোঃ আনোয়ার হোসেন (৪২) মোঃ আব্দুল খালেক সরকার (৩৮) মোঃ নুরে আলম (৪৫) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৪১) মোঃ ইলিয়াস হোসেন (৩৯) ও বাজারের প্রহরী আব্দুল জলিল (৪৫) । আর.এম.সি হাসপাতালে ভর্তি আহত জহিরুল ইসলাম উত্তরা নিউজকে জানায়, আলীরাজ নিজেকে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে গত ৬ মাস যাবৎ বাজার কমিটির নিকট চাঁদা দাবি করে আসছিলেন এবং মার্কেটটি দখলে নিতে চাইছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় আমাদের উপর এই সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে।
এসময় বাজার ব্যবসায়ীদের হাতে রক্তাক্ত হন অন্যপক্ষের আলী রাজ সহ কয়েকজন। এরই প্রেক্ষিতে গত ১৯ অক্টোবর পাল্টা মানববন্ধনের আয়োজন করেন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির একাংশ। মানববন্ধনে অংশগ্রহকারী ব্যবসায়ীরায় জানান, তাঁদের কাছ থেকে গত পাঁচ মাস ধরে বে-আইনীভাবে ২০০ টাকা চাঁদা আদায় করছেন ক্রেতা-বিক্রেতা বহুমুখী সমবায় সমিতির নেতারা। এসময় মানববন্ধনের নেতৃত্বে থাকা শাওন সরকার বলেন, ওই সমিতির নেতারা দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ দোকানিদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে যাচ্ছেন। এর প্রতিবাদ করায় ব্যবসায়ীদের ওপর হামলা করা হয়েছে। দৈনিক ২০০ টাকা চাঁদাবাজির রসিদ আছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা চাই সমবায় সমিতির এই চাঁদাবাজদের বাজার থেকে উৎখাত করে ব্যবসায়ীদের সুশঙ্খল ও শান্তিপূর্ণভাবে ব্যবসার সুযোগ করে দেওয়া হোক।’ এদিকে গত ১২ অক্টোবরের ঘটনায় আহত আলী রাজের দাবী, বাজারে বিদ্যুৎ ও পানির লাইন বন্ধ করে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় তার উপর হামলা চালানো হয়।
বর্তমানে বাজারটিতে অস্থিতিশীল পরিবেশ বিরাজ করায় সাধারণ ব্যবসায়ীরা উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে দিন পার করছেন বলে জানা যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী উত্তরা নিউজ জানায়, বাজারের মধ্যে দুই পক্ষের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটেছে তার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে বাজারের পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে প্রশাসনের পদক্ষেপ নেওয়া অতীব জরুরী এবং সেই সাথে আমরা সাধারণ ব্যবসায়ীরা যাতে সুস্থ্য ও সুন্দরভাবে বাজারে ব্যবসা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারি সেই দাবী জানাচ্ছি।

 



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / স্টাফ রিপোর্টার

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা