abul hossain

উত্তরা ১১,১২,১৩ ও ১৪ নং সেক্টর নিয়ে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন উত্তরের নব-গঠিত ৫১ নং ওয়ার্ড। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিএনসিি উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। উক্ত নির্বাচনে ৫১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে বরাবরের এবারও প্রতিদ্বন্ধিতা করতে যাচ্ছেন অত্র ওয়ার্ডের দুইবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর মোঃ আবুল হোসেন ম-ল। ডিএনসিসি’র নবগঠিত ৫১নং ওয়ার্ডের গরীব-দুঃখী ও শ্রমজীবি মানুষের পছন্দের শীষে থাকা এই কাউন্সিলর প্রার্থী একান্ত সাক্ষাৎকারে উত্তরা নিউজকে বলেন, “আমি এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এখানকার মানুষদের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করেছি। আমি চেষ্টা করেছি এই ওয়ার্ডের গরীব-দুঃখী ও শ্রমজীবি মানুষদের দোয়া ও ভালোবাসায় এই ওয়ার্ডে নির্বাচিত হওয়ার পর এখানকার রাস্তাঘাট, বস্তিবাসীর উন্নয়ন, নাগরিক সমস্যঅগুলো যথাযথভাবে সমাধান করেছি। ভবিষ্যতেও এ অঞ্চলের মানুষের উন্নয়নে কাজ করে যাবো ইনশাআল্লাহ্।”
এসময় তিনি আরও বলেন, “৫১নং ওয়ার্ডে কোন সরকারী কলেজ নেই। আমি কাউন্সিলর হিসেবে এ ওয়ার্ডে কাজ করাকালীন সময়ে চেষ্টা করেছি একটি সরকারী কলেজ প্রতিষ্ঠা করার জন্য, কিন্তু নানা কারণে তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তবে ইনশাআল্লাহ্ এই টার্মে জনগণ যদি আমাকে আবারও নির্বাচিত করে, তবে অত্র এলাকায় একটি সরকারী কলেজ প্রতিষ্ঠা করাই হবে আমার অন্যতম দায়িত্ব।”
৫১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী আবুল হোসেন আপ্লুত কণ্ঠে বলেন, “আমার স্বপ্ন, আমি একটি বৃদ্ধাশ্রম তৈরি করবো। আমার জীবদ্দশায় যদি সরকারি সহযোগিতা পাই কিংবা না পাই, আমি অসহায় মানুষদের জন্য এই কাজটি করবোই।”
পুনঃরায় ৫১নং ওয়ার্ডে ‘কাউন্সিলর’ হিসেবে জয়লাভ করার ব্যাপারে আবুল হোসেন বলেন, “৫১নং ওয়ার্ডের জনগণ আমার ভাই, তারা আমাকে নির্বাচিত করবেই। আমি বিশ্বাস করি, আমি দায়িত্বপ্রাপ্ত থাকা অবস্থায় গরীব-দুঃখী ও অসহায় মানুষদের জন্য কাজ করেছি, এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করেছি। আশা করি উন্নয়নের ধারা ও ৫১নং ওয়ার্ডের জনগণের জীবনমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জনগণ এবারও আমাকে অত্র ওয়ার্ডে ‘কাউন্সিলর’ হিসেবে নির্বাচিত করবে।”



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / মোহাম্মদ গাজী তারেক (স্টাফ রিপোর্টার)

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা