Mishor

মিসরের অভ্যন্তরে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে সাহায্য করছে ইসরায়েল। শুধু তাই নয়, এ অভিযানে সরাসরি যুদ্ধবিমান, ড্রোন ও হেলিকপ্টার দিয়ে অংশ নিচ্ছে ইসরায়েল। সম্প্রতি এমনই বিস্ফোরক তথ্য প্রকাশিত হলো নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে।

মিসরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসির অনুমোদন সাপেক্ষেই গত দুবছর ধরে ইসরায়েলি বিমান দিয়ে শতাধিক হামলা চালানো হয়েছে। রবিবার এ খবর প্রকাশিত হয়েছে।

সিনাই উপত্যকায় ২০১৫ সালে সন্ত্রাসীরা একটি রাশিয়ান যাত্রীবাহী বিমানে হামলা চালিয়ে ভূপাতিত করে। মূলত সে ঘটনার পরে ইসরায়েলের সঙ্গে মিসরের সামরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

ইসরায়েল-মিসর এই সহযোগিতার মাধ্যমে দেশ দুটি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের এ পর্যায়ে গোপন মিত্রে পরিণত হয়েছে। তবে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে হামলার সময় ইসরায়েলের ড্রোন ও সামরিক বিমানে কোনো চিহ্ন রাখা হয়নি। জঙ্গিবিমান ও হেলিকপ্টার থেকে ইসরায়েলের লোগো ঢেকে রাখা হয়েছিল বিরুপ প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কায়।

রিপোর্টে বলা হয়, এর আগে ইসরায়েলের সঙ্গে মিসরের তিনটি যুদ্ধ হয়েছিল। সে যুদ্ধকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে তৈরি হওয়া বৈরিতা এখন নেই বললেই চলে। তবে মিসরের ভেতর থেকে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কায় দুই প্রতিবেশী দেশই ইসরায়েলের হামলার খবর গোপন রাখে।

সূত্র : নিউ ইয়র্ক টাইমস



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা