huawei-arrested

চীনা বহুজাতিক টেলিকম প্রতিষ্ঠান  হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতার কন্যা মেং ওয়ানঝৌ কানাডায় গ্রেপ্তার হয়েছেন। কানাডার ভ্যাঙ্কুভারে ১ ডিসেম্বর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।  তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা হতে পারে।

মেং হুয়াওয়ের ডেপুটি চেয়ারম্যান ও প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা (সিএফও)।

কী কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। তবে ইরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে থাকতে পারে এমন সন্দেহে হুয়াওয়ের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত চালাচ্ছে।

এমন সময় মেং এর গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশিত হলো যখন বাণিজ্য যুদ্ধে সাময়িক বিরতি দিতে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র সম্মত হয়েছে।

হুয়াওয়ে জানিয়েছে, অভিযোগ সম্পর্কে তাদের কাছে তেমন কোনো তথ্য নেই এবং ‘মেং অন্যায় কোনো কিছু করেছেন বলেও তাদের জানা নেই’।

কানাডার বিচার মন্ত্রণালয় মেংয়ের গ্রেপ্তারের তারিখ ও স্থান নিশ্চিত করে বলেছে, ‘যুক্তরাষ্ট্র তাকে হস্তান্তর করতে বলেছে এবং শুক্রবার তার জামিনের শুনানি হবে।’

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মেং বিস্তারিত প্রকাশের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপের আবেদন জানিয়েছেন এবং আদালত তা মঞ্জুর করায় এ বিষয়ে তারা বিস্তারিত কিছু জানাতে পারছে না।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের নিউ ইয়র্ক ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টের এক মুখপাত্র মেংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো দায়ের করেছে বলে জানিয়েছে হুয়াওয়ে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি হুয়াওয়ে।

এদিকে, এই গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানিয়ে চীন দ্রুত মেং এর মুক্তি দাবি করেছে। কী কারণে মেংকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তার সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য ওয়াশিংটন ও অটোয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বেইজিং।

চীন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেং শুয়াং বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন,  বেইজিং পৃথকভাবে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডাকে গ্রেপ্তারের কারণ স্পষ্ট করার আহ্বান  জানিয়েছে এবং দ্রুত গ্রেপ্তারকৃতের মুক্তির দাবি জানিয়েছে।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / জি/তা

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা