eminance college

গত বৃহস্পতিবার উত্তরা ১৩ নং সেক্টরের গরীবে-নেওয়াজ রোডে এমিনেন্স কলেজে সকাল ৯.৩০ মিনিটে নবীন বরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন এমিনেন্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান গ্রুপ ক্যাপটেন (অবঃ)আবু জাফর চৌধুরী। এসময় উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হে নবীন, পূর্ণ স্বাধীনতায় মুক্ত প্রাণে জেগে ওঠো আপন শক্তিতে। স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে কলেজ জীবনের মুক্ত আকাশে পদার্পন করে আজ তোমরা নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখিন। তোমাদের সামনে রয়েছে জীবনের অবারিত সম্ভাবনা। নতুন সম্ভাবনায় তোমাদের জীবন আলোকিত হউক এই আমার একান্ত কামনা। তোমরা এ প্রতিষ্ঠান থেকে বেরিয়ে দেশ-বিদেশের উচ্চতর শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে এ প্রতিষ্ঠানকে, তোমাদের পরিবারকে, সর্বোপরি এ দেশটাকে আলোকিত করবে এ আমার প্রত্যাশা। তোমাদের দেখে আজ আমি মুগ্ধ। আমি আনন্দিত যে, তোমরা সকলে স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণ করেছো। এ প্রতিষ্ঠানটি আমি একটি বিশেষ স্বপ্ন নিয়ে প্রতিষ্ঠিত করেছি। আর সেই স্বপ্ন পূরণের একটি অবিচ্ছেদ্য সারথী তোমরা। তোমাদের মন কুসংস্কারমুক্ত, মুক্ত বুদ্ধির আলোকে উদ্ভাসিক করতে তোমাদের জীবনকে প্রস্ফুটিত করতে ইতোমধ্যে নতুন অধ্যক্ষ যোগ দান করেছেন। তার সততা, কর্মকুশলতা, জ্ঞান গরিমা অবশ্যই তোমাদের চলার পথকে আরো বেগবান এবং শাণিত করবে। এছাড়াও ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে জ্ঞান মূলক তথ্য প্রদান করেন। উক্ত নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ প্রফেসার মাসুদ আহমেদ, মোঃআসাদুজ্জামান জুয়েল। বিশেষ অতিথির বক্ত্যবে অধ্যক্ষ প্রফেসার মাসুদ আহমেদ ছাত্র-ছাত্রীদর উদ্দেশ্যে বলেন নবাগত শিক্ষার্থী, আমাদের এ নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আজ তোমাদের এই নতুন প্রাণের ¯পর্শে স্পন্দিত ও আনন্দ হিল্লোলে মুখরিত। তোমরা এসেছো আমাদের কলেজের আঙিনায়, ছোট্ট গন্ডি পেরিয়ে মুক্ত জ্ঞানের আলোয়। তোমাদের সবার প্রতি রইল আমার আন্তরিক উষ্ণ অভিনন্দন ও গোলাপের শুভেচ্ছা। হে অভিযাত্রী দল, উচ্চতর শিক্ষা অর্জনের প্রাথমিক ক্ষেত্র এমিনেন্স কলেজ। এ শিক্ষাঙ্গন তোমাদের সার্বিক জ্ঞান চর্চা ও স্বাধীন চিন্তা বিকাশের জন্য অবারিত ও উন্মুক্ত। নিরন্তর সাধনা ও পঠন-পাঠনের মাধ্যমে বিকশিত করো তোমাদের মেধা ও মননশীলতাকে, আদর্শ করো নীতি-নৈতিকতা ও মানবিক গুণাবলীর মূল্যবোধকে। এখানকার শিক্ষা নিয়ে তোমরা দেশ-জাতি ও বিশ্বমানবতার কল্যাণে নিয়োজিত হও এটিই আমাদের প্রত্যাশা। যৌবনের আলোয় আলোকিত হোক তোমাদের ভুবণ, তোমাদের কৃতিত্বে প্রতিষ্ঠান হয়ে উঠুক গৌরবোজ্জল ও প্রসিদ্ধ। আমি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তোমাদের জ্ঞান অর্জনের সকল সুবিধা ও সুযোগ প্রদানের দৃঢ় নিশ্চয়তা প্রদান করছি। সময়টা তোমাদের হউক, তোমাদের নিয়ে আমরা গর্বিত হই, প্রতিষ্ঠান আরো উন্নয়নের সিঁড়িতে অগ্রসরমান হউক । প্রবীণ ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ, আজ তোমরা যাদের নবীন হিসেবে বরণ করলে আমি চাই তাদের জ্ঞানার্জনের পথে আলোর দিশারী হও, অনুজ ভেবে তাদের সাহায্য সহযোগিতা করো, কাঁধে কাধ মিলিয়ে এগিয়ে চলো বড় হওয়ার পথে, আলোকিত হওয়ার পথে।
নবীন বরণ অনুষ্ঠানটি তিনটি ধাপে সম্পন্ন হয়।প্রথম ধাপে আলোচনা সভা দ্বিতীয় ধাপে নতুন ছাত্র-ছাত্রীদর ফুল দিয়ে বরন করে নেওয়া এবং তৃতীয় ধাপে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নবীন বরণ অনুষ্ঠান সমাপ্তি হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ মনিরুল হোসেন(অবঃ) পরিচালক, প্রশাসন তিনি ছাত্র-ছাত্রীদর বলেন আজ এই আনন্দঘন উৎসবমুখর পরিবেশে উপস্থিত হতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। অনাগত সম্ভাবনার সমুজ্জলতায় আবাহন করার দিন আজ। প্রিয় শিক্ষার্থীরা, বর্তমানে জাতীয় সকল ক্ষেত্রেই মুক্তবুদ্ধিচর্চার অভাব, প্রকৃত শিক্ষায় স্বশিক্ষিত মানুষের অভাব। তাই জাতিকে উন্নতির চরম শিখরে-আরোহন করতে হলে প্রথমে তোমাদের প্রত্যেকেই শিক্ষার আলোয় আলোকিত এবং স্বশিক্ষিত হতে হবে। শুধু এই অনুষ্ঠানের উপস্থিত হলেই চলবে না, নিয়মিত শ্রেণিকক্ষে উপস্থিত হয়ে পড়াশুনা করে ভাল ফলাফল অর্জন করতে হবে। প্রতিষ্ঠানের সুনাম চারিদিকে ছড়িয়ে দিতে হবে। সবার সুস্থ, সুন্দর জীবন কামনা করে তিনি সভাপতির বক্তব্য শেষ করেন। উক্ত নবীন বরণ অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন আল-মামুন আকন্দ প্রভাষক ও ইসরাত জাহান প্রভাষক। এছারাও উপস্থিত ছিলেন এমিনেন্স কলেজের সকল প্রভাষক, ছাত্র-ছাত্রী,অবিভাবক কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / এরশাদ হোসেন বিজয় (নিজস্ব প্রতিবেদক)

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা