naogaon

নওগাঁর আত্রাই থানা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও সাবেক সাধারন সম্পাদক তসলিম উদ্দীনকে (৫৫) র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নিয়ে দু’পা ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে দূর্বত্তরা এ সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে মনে করছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। রোববার রাত সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার মহিলা কলেজ রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তসলিম উদ্দীন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তিনি উপজেলার পারগুড়নৈ গ্রামের মৃত ফরু সাখিদারের ছেলে।

স্থানীয় এবং পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, ওই দিন রাতে আত্রাই সদর বাজারে একটি দোকানে বসে গল্প করছিলেন। এসময় তিনটি মোটরসাইকেল যোগে এসে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে তসলিম উদ্দীনকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর আত্রাই মহিলা কলেজ এলাকায় রাত ১১ টার দিকে রাস্তার পাশে স্থানীয় ভ্যান চালক তাকে আহতাবস্থায় পরে থাকতে দেখে লোকজনকে ডাকাডাকি করেন। পরে তাদের সহযোগীতায় তসলিমকে উদ্ধার করে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

তসলিম উদ্দীনের শ্যালক ইদ্রীস আলী বলেন, তার ভগ্নিপতির দু’পা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। তবে কারা কেন এঘটনা ঘটিয়েছে তা বলতে পারেছেন।

আত্রাই থানা বিএনপির আহ্বায়ক রেজাউল ইসলাম বলেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন। এর আগেই এ ধরনের ঘটনা। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে এ সহিংসতার ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে। নির্বাচন ছাড়া তো অন্য কোন কারণ আমি দেখছিনা। তা না হলে কেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে তুলে নিয়ে গিয়ে এভাবে নির্যাতন করার কোন যুক্তিই আসেনা।

আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোবারক হোসেন বলেন, তসলিম উদ্দীনের উপর হামলার ঘটনাটি শুনেছি। এঘটনায় থানায় এখনো কোন অভিযোগ বা মামলা দায়ের করা হয়নি। তবে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে ।#

 



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / তানজিম আহম্মেদ সুমন (আত্রাই প্রতিনিধি)

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা