vp-manik-claim

লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ড. আনোয়ার হোসেন খানের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংগঠিত অপপ্রচারের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন উপজেলার ভোলাকোট ইউপি চেয়ারম্যান বশিদ আহমেদ (মানিক)।  সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য প্রতীকে মনোনয়ন প্রার্থী ড. আনোয়ার খানের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে #MeToo আন্দোলনে অংশ নিয়ে সাবিহা নাজনীন নামক অপরিচিত নারীর মন্তব্যের জের ধরে  এই তীব্র নিন্দা জানান ইউপি চেয়ারম্যান বশিদ আহমেদ (মানিক)।

এসময় প্রতিবাদ লিপিতে তিনি লিখেন, “রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, তৃণমূল নেতা কর্মীদের প্রাণের স্পন্দন, রামগঞ্জ উপজেলার সাড়ে চার লক্ষ মানুষের নয়নের মণি, যিনি রামগঞ্জ আওয়ামী লীগ কে সুসংগঠিত করেছেন, যিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করেন, নম্র, ভদ্র , একজন ভাল মানুষ , তিনি মদ ,জুয়া, এবং সিগারেট পর্যন্ত পান করেন না, সেই ড.আনোয়ার হোসেন খান এর চরিত্র নিয়ে যাহারা facebook এ মিথ্যা বানোয়াট তথ্য উপস্থাপন করে post করছেন আমি সে জন্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই ।”

এর আগে আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের এক প্রতিবাদ লিপিতে ওই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হয়। Image may contain: text

সম্প্রতি গণমাধ্যমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানা যায়,  উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ঢাকার ধানমন্ডি আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ড. আনোয়ার খান বিগত ৪ বছর থেকে রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষকলীগসহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে জনসংযোগ, উঠান বৈঠক, মিটিং মিছিল, দলীয় ও সরকারী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ জনপ্রিয় নেতার মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত হওয়ার সংবাদটি উপজেলাব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার পরই তার বিরুদ্ধে একটি মেয়ের নাম দিয়ে কল্পকাহিনী রচনা শুরু করেছে।

তবে এই ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আকম রুহুল আমিন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্ছু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মনির হোসেন চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র বেলাল আহমেদ, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার শিউলী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল মাল ও সাধারণ সম্পাদ মেহেদী হাসান শুভ, পৌর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিলন আঠিয়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক সোহেল রানা, যুগ্ম আহবায়ক আলী মুর্তুজা বাবু, কৃষক লীগের সভাপতি আবুল কাশেম মাস্টারসহ ও উপজেলার ১০ ইউনিয়নের ১০ জন চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা।

লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) এ নৌকার প্রার্থীর জয় ঠেকাতেই এরকম মিথ্যা অপপ্রচার বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / স্টাফ রিপোর্টার/ গাজী তারেক

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা