ময়মনসিংহ

বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান মহান মুক্তিযুদ্ধের অগ্রনায়ক স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শোকের মাস আগষ্টকে বিদায় জানাতে শুক্রবার (৩১ আগষ্ট) বিকেলে ময়মনসিংহে রেলওয়ে কৃষ্ণচুড়া চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কালো পতাকা মিছিল ও শোক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল এর সভাপতিত্বে এবং আহমদ আলী আকন্দ ও শওকত জাহান মুকুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শোক সমাবেশে বঙ্গবন্ধুর প্রতি অফুরন্ত শ্রদ্ধা আর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন- স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) এর মহাসচিব, ময়মনসিংহ সদর-৪ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচিত সিনেট সদস্য, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতা( প্রস্তাবিত কমিটি) জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ, ময়মনসিংহ পৌরসভার জনপ্রিয় মেয়র ইকরামুল হক টিটু, সাবেক সংসদ সদস্য হায়াতুর রহমান বেলাল, কাজী আজাদ জাহান শামীম, এম.এ.কদ্দুছ, আবু সাঈদ, দীন ইসলাম ফখরুল,সাবেক ভিপি ফিরোজ আহম্মেদ, এ্যাডভোকেট এমদাদুল হক সেলিম, এ্যাডভোকেট মফিজ উদ্দিন মন্ডল, আলহাজ্ব এমএ ওয়াহেদ, সামিউল আলম লিটন, ত্রিশাল পৌর মেয়র আনিছুজ্জামান আনিছ, এডভোকেট নূরুজ্জামান খোকন, জেলা যুবলীগ যুগ্ন আহ্বায়ক এইচ,এম ফারুক, শাহ শওকত উসমান লিটন, শামছুল আলম, শাহিনুর রহমান, পুলকিত চৌধুরী, গোলাম মোস্তফা বাবুল, মনিরা সুলতানা মনি প্রমুখ। শোক সমাবেশ বক্তারা -আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোককে শক্তিতে পরিণত করে সকল লবিং- গ্রুপিং, দ্বিধা-দ্বন্ধ, ভেদা-ভেদ ভুলে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানের রুপরেখা বাস্তবায়নে আবারো নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাসিনার হাত শক্তিশালী করতে সকল নেতা-কর্মী ও উপস্থিত জনতার প্রতি আহবান জানান। সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে কালো পতাকা হাতে নিয়ে বিশাল শোক মিছিলটি রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্ত্বর থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউনহল চত্বরে গিয়ে শেষ করে।

শোক মিছিলে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের আওয়ামী লীগ,  অংগ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মী অংশ গ্রহণ করায় মিছিলটি লোকে-লোকারণ্য হয়ে উঠে। উল্লেখ্য যে, পতাকাবাহী শোক মিছিলে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ এর  নেতৃত্বে ভালুকা উপজেলার শতশত নেতাকর্মীর উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

মিছিল শেষে  আজকের এই আয়োজন সম্পর্কে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ বলেন, ১৫ আগস্ট ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় একটি দিন। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাতবার্ষিকী। ১৯৭৫ সালের এইদিন অতিপ্রত্যুষে ঘটেছিল ইতিহাসের সেই কলঙ্কজনক ঘটনা। সেনাবাহিনীর কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সৈনিকের হাতে সপরিবারে প্রাণ দিয়েছিলেন বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।   এই নৃশংস হামলার  ঘটনায় আরো যারা প্রাণ হারিয়েছিলেন তারা হলেন : বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল, রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের ও কর্নেল জামিল, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, আরিফ রিন্টু খানসহ অনেকে। আগস্ট মাসটি তাই বাংলাদেশের মানুষের কাছে শোকের মাসে পরিণত হয়েছে। 

বাংলাদেশ ও বাঙালির সবচেয়ে হদয়বিদারক ও মর্মস্পর্শী শোকের আগস্ট আসে বাঙালির হূদয়ে শোক আর কষ্টের দীর্ঘশ্বাস হয়ে। তাই  শোকের মাসে জাতির পিতাকে হারানোর শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করার অঙ্গীকার করছি। 



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা